ই-পেপার বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১

সমাবর্তন কেন, কীভাবে এলো?

সৌরভ শুভ, জাবি প্রতিনিধি
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৪:৩২
আপডেট  : ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৪:৩৪

‘সমাবর্তন’ একজন গ্র‍্যাজুয়েট শিক্ষার্থীর শিক্ষাজীবনের স্মরণীয় ঘটনা। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬ষ্ঠ সমাবর্তন অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল শনিবার। এবারের সমাবর্তনে ১৫ হাজার ২১৯ জন শিক্ষার্থী ও গবেষক অংশগ্রহণ করবেন। সমাবর্তনকে ঘিরে শিক্ষার্থীদের মধ্যে উচ্ছ্বাসের কমতি নেই। এতে পরনে থাকে কালো গাউন, হুড আর চার কোনা টুপি। এছাড়াও সমাবর্তকে ঘিরে বেশকিছু প্রচলিত নিয়ম আছে। কীভাবে এলো এ নিয়মগুলো?

চাই বিশেষ পোশাক

দ্বাদশ শতকের দিকে ইউরোপের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে সমাবর্তন অনুষ্ঠানে বিশেষ ধরনের পোশাকের প্রচলন শুরু হয়। এই ধরনের অনুষ্ঠান বেশির ভাগ ক্ষেত্রে শীতকালে বা শীতল পরিবেশে অনুষ্ঠিত হতো। তাই ছাত্রছাত্রীদের উষ্ণ রাখতে এবং অন্যদের থেকে আলাদা করতে শুরুতে বিশেষ গাউন, হুড ও টুপি পরার প্রচলন শুরু হয়। লম্বা সময় ধরে এ ধরনের পোশাক সমাবর্তন অনুষ্ঠানে ব্যবহৃত হয়ে এসেছে। শুরুর দিকে নির্দিষ্ট রঙের গাউন, হুড বা টুপি ব্যবহারের প্রথা ছিল না।

গাউনের রং কেন কালো

১৮৯৪ সালে আমেরিকান ইন্টারকলেজিয়েট কমিশন নিউইয়র্কের কলম্বিয়াতে সমাবর্তনের পোশাক, হুডের স্টাইল ও রং নির্ধারণের উদ্দেশে একটি সভা আহ্বান করে। সেই সভায় সমাবর্তনের জন্য সব পোশাকই কালো হবে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। স্নাতকের গাউন পয়েন্টযুক্ত হাতা দিয়ে তৈরি করা হবে আর স্নাতকোত্তরের গাউন হবে সিল্কের তৈরি লম্বা হাতাওয়ালা। হুডগুলোও তৈরি হবে গাউনের মতো একই উপকরণ দিয়ে। শুধু এর দৈর্ঘ্য ডিগ্রির সঙ্গে পরিবর্তিত হবে। তবে গাউনের জন্য নির্দিষ্ট রং কালো হলেও ভিন্ন ভিন্ন অনুষদের জন্য ভিন্ন ভিন্ন রঙের হুড ব্যবহারের অনুমতি ছিল, যা এখনো প্রচলিত।

চার কোনা টুপি যে কারণে

শুরুর দিকে সমাবর্তনে গোলাকার টুপির প্রচলন লক্ষ করা যায়। যদিও সমাবর্তন টুপির জন্য সর্বাধিক প্রচলিত শৈলী হলো মর্টারবোর্ড ক্যাপ, যা সমাবর্তন গাউনের সঙ্গে এক অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে গেছে। ক্যাথলিক চার্চ, পণ্ডিত ও অধ্যাপকদের ব্যবহৃত বিরেটা নামে পরিচিত টুপি থেকে এই টুপিগুলো ১৫ শতকে বিকশিত হয়েছিল বলে মনে করা হয়। যদিও গির্জায় বিরেটার উৎপত্তি ১৩ শতকের দিকে।

মর্টারবোর্ড নামটি এসেছে মূলত আকৃতি থেকে। এটি আদতে নির্মাণশ্রমিকদের (স্টোনমাসন) মর্টার বহন করার জন্য ব্যবহৃত বর্গাকার বোর্ডের মতো। তাই কেউ কেউ বিশ্বাস করেন, টুপিটি চার কোনা কারণ এটি মর্টারবোর্ডের প্রতিনিধিত্ব করে। উৎপত্তি নিশ্চিত নয়, তবে সমাবর্তনের টুপি হিসেবে শিক্ষার্থীরা এই স্টাইল পছন্দ করেছেন বলেই হয়তো এটি টিকে গেছে।

টুপি কেন আকাশে?

১৯১২ সালে আমেরিকান নেভাল একাডেমি প্রথম সমাবর্তন টুপি আকাশে নিক্ষেপ করা শুরু করে। এর কারণ হলো, পূর্ণাঙ্গ অফিসার হওয়ার আগে নৌবাহিনীর গ্র্যাজুয়েটদের প্রথম দুই বছর মিডশিপম্যান হিসেবে কাজ করতে হতো। যখন মিডশিপম্যানরা স্নাতক হন, তখন অফিসারদের কাছে একটি নতুন টুপি দেওয়া হতো। সে সময় তাঁরা তাঁদের পুরোনো টুপিগুলো আকাশে উড়িয়ে দিতেন। সেই থেকেই এটি ধীরে ধীরে দেশজুড়ে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে ছড়িয়ে পড়ে, যা আজকে উচ্ছ্বাসের প্রতীক হয়ে বিশ্বজুড়ে সব শিক্ষার্থীর কাছে গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছে।

রেশম থোবার প্রচলন

শিক্ষার স্তরের প্রতিনিধিত্ব করার জন্য ১৪ শতকের দিকে সমাবর্তনের টুপির সঙ্গে ট্যাসেল বা রেশমি থোবার প্রচলন শুরু হয়। একজন শিক্ষার্থী স্নাতক শেষ করার পর ট্যাসেলটি ডান থেকে বাঁয়ে সরাতে পারেন। গ্র্যাজুয়েশনের আগে এই ট্যাসেল একজন শিক্ষার্থীর জন্য সময়ের প্রতীক। যখন এটিকে এক পাশ থেকে অন্য পাশে সরানো হয়, তখন ডিগ্রি সম্পন্ন হয়েছে বলে মনে করা হয়। সাধারণ এই ব্যাপার ধীরে ধীরে ঐতিহ্য হয়ে উঠেছে।

এবি/ জিয়া

বিশ্বকে বাঁচাতে সময় মাত্র দুই বছর

* ২০৩০ সালের মধ্যে তাপমাত্রা কমাতে হবে ৪৩ শতাংশ, না হলে বিশ্বজুড়ে আরও খরা, বনে

উপজেলা নির্বাচন নিয়ে বিপাকে তৃণমূল

আর মাত্র কদিন পরই শুরু হতে যাচ্ছে সারাদেশে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। আর এই নির্বাচন নিয়ে

নিমাইচাঁদের পুণ্যস্নানে মানুষের ঢল

রতন বালো, বালিরটেক (মানিকগঞ্জ) ঘুরে এসে: ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য, ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনা আর কড়া নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে ৩০০

ইসরায়েলে ইরানের ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা, অজানা আশঙ্কায় বিশ্ববাসী

গত শনিবার রাতে ইসরায়েলে ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইরান। সেই জবাব ইসরায়েল কীভাবে দেবে,
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

ঝড়ে তার ছিঁড়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে শিশুর মৃত্যু

তৃতীয় ধাপের উপজেলা ভোট ২৯ মে

রেকর্ড ৪০.৭ ডিগ্রি তাপমাত্রায় পুড়ছে চুয়াডাঙ্গা

দ্রুত সময়ের মধ্যে মুজিবনগরে স্থলবন্দর হবে: জনপ্রশাসনমন্ত্রী

নৌকা যেখানে আছে জনগণ সেখানে নেই: আমির খসরু

ঝালকাঠিতে প্রাইভেট-ট্রাক-অটোর ত্রিমুখী সংঘর্ষে নিহত ১২

বিশ্বকে বাঁচাতে সময় মাত্র দুই বছর

উপজেলা নির্বাচন নিয়ে বিপাকে তৃণমূল

ইরানের প্রতিশোধ; বড় যুদ্ধের ঝুঁকিতে পৃথিবী

কৃষি জমি সুরক্ষা ও ব্যবহার আইন দ্রুত পাস করতে হাইকোর্টের রায়

নির্বাচনী দ্বন্দ্বে চকরিয়ায় দুজনকে কুপিয়ে হত্যা

মাদক কারবারে বদির দুই ভাইয়ের সংশ্লিষ্টতা পেয়েছে সিআইডি

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধে নিহত হয়েছে ৫০ হাজারের বেশি রুশ সেনা

ইলিয়াস আলীসহ সব গুম রাষ্ট্রের পৃষ্ঠপোষকতায় হয়েছে: রিজভী

নরসিংদীতে দুই পক্ষের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে যুবক নিহত

হিজবুল্লাহ বা ইরান কেউই বর্তমানে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত নয়: ইইউ

৮ হাজার ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার সনদ বাতিল: মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী

কৃষি গুচ্ছের ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ, ২২ এপ্রিল থেকে আবেদন

আমিরাতে ৭৫ বছরের ইতিহাসে বৃষ্টির রেকর্ড, নিহত ২

জিডিপি কমার পূর্বাভাসে চিন্তার কিছু নেই: অর্থমন্ত্রী