ই-পেপার বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
বিএনপি-জামায়াতের ‘না’

উপজেলা নির্বাচন নিয়ে বিপাকে তৃণমূল

পারভেজ খান
প্রিন্ট ভার্সন
১৭ এপ্রিল ২০২৪, ১৪:২০

আর মাত্র কদিন পরই শুরু হতে যাচ্ছে সারাদেশে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। আর এই নির্বাচন নিয়ে বিপাকে পড়েছে বিএনপি ও জামাত। বিশেষ করে বিএনপির তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা দলের শীর্ষ পর্যায়ের সিদ্ধান্তর সাথে বেশির ভাগ সময়ই এক হতে পারেন না। সিদ্ধান্ত নামের একটা খড়গ কেন্দ্র থেকে চাপিয়ে দেয়া হয় তাদের মাথার উপর। গতকাল মঙ্গলবার বিএনপি কেন্দ্রীয়ভাবে বৈঠক করে এই নির্বাচন বর্জনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। কিন্তু এর আগেই বিএনপির অনেকে মনোনয়নপত্র কিনে জমাও দিয়েছেন। নেমে পড়েছেন প্রচার প্রচারণায়। নির্বাচন কমিশন তথ্য মতে, ১৫২ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৬৯৬ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৭২৪ জন এবং সংরক্ষিত নারী পদে ৪৭১ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। এদের মধ্যে স্থানীয় অনেক বিএনপি নেতাও আছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলের একজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা এই প্রতিবেদককে জানান, উপজেলা নির্বাচনের বিষয়ে বিলম্বে সিদ্ধান্ত নেয়াটা তাদের দলের কৌশলের অংশ বলে অনেকে বলছেন। এর মাধ্যমে বিএনপির সেই ভাবনার নেতারা দেখতে চাইছেন দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে কতসংখ্যক নেতা প্রথম ধাপের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। প্রথম ধাপের নির্বাচনে যারা মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন, তাদের একটি তালিকা তৈরি করা হচ্ছে। কিন্তু এতে করে বিএনপি নিজেই যে কাঠামোগত দুর্বল হয়ে পড়ছে সেটা তারা ভাবছেন না। আসলে দল যে কে চালাচ্ছেন, দেশের ভেতর থেকে না বাইরে থেকে সেটাই তারা বুঝে উঠতে পারছেন না। বার বার সিদ্ধান্ত পাল্টাতে হয় তাদের। আর এর ফলেই বিএনপির আজ এই বুমেরাং অবস্থা বলে মনে করেন এই নেতা।

এ ব্যাপারে বিএনপির আরেক শীর্ষ নেতা বলেন, এই সরকারের অধীনে তারা কোনো নির্বাচনে যাবে না এটা তাদের পুরাতন সিদ্ধান্ত। দলের এই সিদ্ধান্ত অমান্য করে তৃণমূলের নেতাদের যারা প্রার্থী হবেন, তাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে। এই শাস্তি থেকে রেহাই পেতে হলে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের সময় শেষ তারিখ ২২ এপ্রিল এর আগেই তা প্রত্যাহার করে নিতে হবে।

গতকাল বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে দলের এমন সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে। তবে দলটির এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রথম ধাপের ১৫০টি উপজেলা নির্বাচনের মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার সময় শেষ হওয়ার পর। ফলে দেরিতে নেয়া এই সিদ্ধান্ত নিয়ে এখন বিপাকে পড়েছে বিএনপির তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা। অনেকেই এই নির্বাচনকে সামনে রেখে আগে থেকেই মাঠে নেমেছেন। ইতিমধ্যে ব্যয় হয়ে গেছে অনেক অর্থ।

বিবৃতিতে বলা হয়, বিএনপি বর্তমান নির্বাচন কমিশনের অধীনে এবং প্রশাসন ও পুলিশের একপেশে ভূমিকার জন্য এর আগেও জাতীয় সংসদ ও স্থানীয় সরকার নির্বাচন বর্জন করেছে। এখনও সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের পরিবেশ তৈরি হয়নি। বিদ্যমান পরিস্থিতির আরও অবনতি হওয়ায় আসন্ন উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণ না করার যৌক্তিক কারণ রয়েছে। বিএনপি ৮ মে থেকে শুরু হওয়া সব ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচন বর্জনের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, বর্তমান সরকারের আমলে দেশে জাতীয় ও স্থানীয় সরকারের কোনো নির্বাচনই অবাধ ও সুষ্ঠু হয়নি। ক্ষমতাসীন দলের মনোনীত প্রার্থীদেরই নির্বাচন কমিশন বিজয়ী ঘোষণা করে। প্রতিদ্বন্দ্বী বিরোধী দলের প্রার্থীদের নানাভাবে হামলা, মামলা ও হয়রানির শিকার হতে হয়েছে। মনোনয়নপত্র তোলা ও জমা দেয়া এবং নির্বাচনী প্রচারে হামলা এবং শারীরিক আক্রমণসহ পথে পথে বাধা দেয়া হয়। অনেককেই মনোনয়নপত্র জমা দিতেও দেয়া হয়নি।

তবে বিএনপির স্থায়ী কমিটির একাধিক সদস্য বলেছেন, দলের সিদ্ধান্ত নিতে দেরি হওয়ায় তারা এক বিব্রতকর অবস্থায় পড়েছে। এমনিতে গত সংসদ নির্বাচনে তাদের অংশ নেয়া না নেয়া নিয়ে মত বিভেদ ছিলো। যার খেসারত তাদের এখনও দিতে হচ্ছে। এবার তৃণমূলেও একই অবস্থা। তৃণমূলের বড় অংশই চান নির্বাচনে অংশ নিতে।

প্রথম ধাপের ১৫২ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে গত সোমবার (১৫ এপ্রিল) ছিল মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ দিন। বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা গেছে উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন দলটির অনেক স্থানীয় নেতা।

বিএনপির জোটসঙ্গী জামায়াতে ইসলামীও রাজশাহী, রংপুরসহ সাংগঠনিকভাবে তাদের ঘাঁটি বলে পরিচিত এলাকায় প্রার্থী দিয়েছে। তারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন। নির্বাচন কমিশনের তথ্য মতে, ১৫২ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৬৯৬ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৭২৪টি এবং সংরক্ষিত নারী পদে ৪৭১টি মনোনয়নপত্র জমা পড়েছে। অর্থাৎ তিন পদে মোট এক হাজার ৮৯১ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এর বেশির ভাগই আওয়ামী লীগ, বিএনপি এবং জামায়াত দলীয় প্রার্থী।

বিভিন্ন সূত্র থেকে পাওয়া তথ্য মতে, নওগাঁর ধামইরহাট, গাজীপুর সদর, লক্ষ্মীপুরের রামগতি, মানিকগঞ্জের হরিরামপুর, কুমিল্লার নাঙলকোট, পঞ্চগড় সদর, ময়মনসিংহের ফুলপুর, রাজশাহীর গোদাগাড়ী, শেরপুরের ঝিনাইগাতি, সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলা চেয়ারম্যান পদে বিএনপি নেতারা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল উপজেলায় বিএনপির দুইজন নেতা প্রার্থী হয়েছেন। এ ছাড়া মানিকগঞ্জের সিংগাইরে একজন ভাইস চেয়ারম্যান ও একজন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান, মেহেরপুর সদরে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

সূত্র আরও জানায়, গাজীপুর সদরে বিএনপি নেতা এজাদুর রহমান চৌধুরী ওরফে মিলন ( জেলা বিএনপির সহসভাপতি), মানিকগঞ্জের সিংগাইরে তোফাজ্জল হোসেন (উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি) ও মোছা. আঁখি (সিংগাইর মহিলা বিএনপির সহসভাপতি), হরিরামপুরে বিএনপি নেতা জাহিদুর রহমান তুষার (উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক কমিটির আহ্বায়ক), সুনামগঞ্জের দিরাইতে গোলাপ মিয়া (উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক), শাল্লায় গণেন্দ্র চন্দ্র সরকার (উপজেলা বিএনপির সভাপতি), কুড়িগ্রামের রৌমারীতে ইমান আলী (বর্তমানে উপজেলা চেয়ারম্যান এবং উপজেলা বিএনপির সহসভাপতি), ঠাকুরগাঁওয়ের হরিপুরে বিএনপি নেতা ইসমাঈল হোসেন, দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে বিএনপি নেতা শাহ মোহাম্মদ শামীম হোসেন চৌধুরী (উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও সাবেক চেয়ারম্যান), পঞ্চগড় সদরে বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক আবু দাউদ প্রধান, আটোয়ারীতে উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও উপজেলা পরিষদের বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান শাহজাহান এবং তেঁতুলিয়ায় বিএনপির সমর্থক মুক্তারুল হক মুকু, ফরিদপুরের সালথায় মো. আসাদুজ্জামান আসাদ (উপজেলা যুবদলের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক) এবং রাজশাহীর গোদাগাড়িতে জেলা যুবদলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সাজেদুর রহমান খান মার্কনী, সিলেটের বিশ্বনাথে সোহেল চৌধুরী (বিএনপির বহিষ্কৃত নেতা), একই উপজেলায় গৌছ খান (পৌর বিএনপির সদস্য), সেবুল মিয়া ও শফিক মিয়া (যুক্তরাজ্য বিএনপির নেতা) প্রার্থী হয়েছেন।

এবার চার ধাপে মোট ৪৮১ উপজেলা পরিষদে নির্বাচন হবে। এর মধ্যে প্রথম ধাপে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ৮ মে।

নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন এমন কয়েকজনের সাথে কথা বলে, যারা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে তাদের দল থেকে বহিষ্কার করা হবে বলে হুমকি দেয়া হচ্ছে।কিন্তু তাদের প্রার্থীদের অনেকেই মনে করেন, দলের পদের চাইতে নির্বাচিত হলে সেই পদটাই তাদের জন্য বড়। আর তাদের আগে ভাগে না জানিয়ে এখন শেষ পর্যায়ে এসে নিষেধ করাটা এক ধরনের রাজনৈতিক স্বেচ্ছাচারিতা বলে মন্তব্য করছেন তারা।

অপরদিকে জামায়াতের অন্তত ৮০ জন নেতার নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সিদ্ধান্ত থাকলেও শেষ পর্যন্ত দলটি নির্বাচনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে। কিন্তু এরপরেও গত সোমবার দলটির মাঠ পর্যায়ের অন্তত তিনজন নেতা নির্বাচনে অংশ নেওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

নির্ভরযোগ্য সূত্রগুলো জানাচ্ছে, উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেওয়ার বিষয়ে জামায়াতের কেন্দ্র থেকে সবুজসংকেত দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু লন্ডনে অবস্থানরত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের হস্তক্ষেপে শেষ পর্যন্ত তারা ভোটে অংশগ্রহণের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে। নির্বাচনে যাওয়ার প্রশ্নে তারেক রহমানের সঙ্গে সম্প্রতি জামায়াতের ভার্চুয়াল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকের পর নির্বাচনে না যাওয়ার বিষয়ে জামায়াতের কেন্দ্র থেকে নির্দেশনা যায় তৃণমূল পর্যায়ে।

এ ছাড়া কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদে জেলা জামায়াতের সেক্রেটারি সুজাউদ্দিন জোয়ার্দ্দার, খুলনায় ফুলতলা উপজেলায় জামায়াত নেতা গাউসুল আজম হাদী চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করছেন। খুলনার ফুলতলায় জামায়াত নেতা গাউসুল আজম হাদী চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাট উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে উপজেলা জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমির মো. লোকমান আলী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

জামায়াতের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা আবদুল হালিম আমার বার্তাকে বলেন, ‘জামায়াতে ইসলামী উপজেলা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না। দলীয়ভাবে আমরা নির্বাচনে অংশ নিচ্ছি না, স্বতন্ত্রভাবেও যাতে কেউ নির্বাচনে অংশ না নেন, সে ব্যাপারেও দলীয় নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’

আমার বার্তা/জেএইচ

সড়কে শৃঙ্খলায় হিমশিম পুলিশ

বাবুবাজার বেড়িবাঁধ থেকে গাবতলী রাস্তাটি অত্যন্ত ব্যস্ত রাস্তা। লেগুনা-পিকআপ এবং বাস-ট্রাকসহ ভারি যানবাহন চলে এই

বকেয়া বেতন পরিশোধে ৩২৭ মেয়রের প্রতি চিঠি

সারাদেশের ৩২৯টি পৌরসভার সাড়ে ৩২ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বকেয়া বেতন-ভাতা প্রদানের জন্য পৌর মেয়রের প্রতি চিঠি

স্ত্রীকে মাছ ব্যবসায়ী বানিয়ে ঘুষের টাকা বৈধ করার চেষ্টা

স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) সাবেক অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী মজিবুর রহমান সিকদার অবৈধ টাকা বৈধ

পুরান ঢাকার ১৮টি স্পটে ওসি ফান্ডের নামে দিনে কোটি টাকার চাঁদাবাজি

রাজধানীর পুরান ঢাকার কোতোয়ালি থানার অন্তর্ভুক্ত ১৭টি স্পট বা এলাকা এখন সন্ত্রাসী আর চাঁদাবাজদের স্বর্গরাজ্য।
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

মেক্সিকোতে নির্বাচনী প্রচারণার মঞ্চ ভেঙে শিশুসহ নিহত ৯

সরকারের এই নীতি কর্তৃত্ববাদী শাসনের চরম দৃষ্টান্ত: রিজভী

এমপি আজীমের জনপ্রিয়তা দেখে মনোনয়ন দেওয়া: কাদের

নিজ শহর মাশহাদে দাফন করা হবে রাইসিকে

ফিলিস্তিনকে 'একতরফা স্বীকৃতি' দেওয়ায় বাইডেনের বিরোধিতা

অবশেষে ট্রাম্পকেই সমর্থন দিলেন নিকি হ্যালি

ভিয়েতনামের নতুন প্রেসিডেন্ট তো লাম

‘দণ্ড মাথায় নিয়ে ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ আইনের দৃষ্টিতে সমীচীন নয়’

খোলামেলা ফটোশুটে প্রিয়াঙ্কার উত্তাপ

বাংলাদেশ ব্যাংক সমবায় সমিতিতে পরিণত হয়েছে: ড. সালেহ উদ্দিন

এমপি আনার হত্যাকাণ্ডে জড়িত কে এই শিলাস্তি রহমান

শান্তিরক্ষা মিশনে নিয়োগ নিয়ে সতর্ক জাতিসংঘ

ইরানের রাষ্ট্রদূতের কার্যালয়ে গিয়ে শোক প্রকাশ করলেন ফখরুল

কারও কোনো ক্ষতি করিনি, চেষ্টাও করিনি: ড. ইউনূস

যে ৫ খাবার আপনার ওজন কমাবে

কিরগিজের মন্ত্রীকে বাংলাদেশিদের নিরাপত্তা নি‌শ্চিতের অনুরোধ

শাহজালাল বিমানবন্দরে ৫ কোটি টাকার স্বর্ণসহ আটক ২

বাবা হারালেন অভিনেত্রী আফসানা মিমি

৮০ শতাংশ নৌশ্রমিক চর্ম ও আন্ত্রিক রোগে আক্রান্ত: এসসিআরএফ

অক্সিজেন ছাড়াই এভারেস্টের চূড়ায় পাকিস্তানি তরুণ