ই-পেপার সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

কুবিকে অস্থিতিশীল করছেন হত্যা, ধর্ষণ মামলার আসামি রেজা-ই-এলাহি

কুবি প্রতিনিধি
০৮ জুন ২০২৩, ১৩:০৩

দেশের অন্যতম সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থিতিশীলতা নষ্ট হচ্ছে শাখা ছাত্রলীগের সাবেক এক নেতার অনৈতিক ও সংঘাতমূলক কর্মকাণ্ডে। তাঁর বিরুদ্ধে হত্যা, ধর্ষণ ও প্রতারণাসহ বিভিন্ন মামলা রয়েছে। তিনি কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রেজা-ই-এলাহি। শাখা ছাত্রলীগের আগামী কমিটিতে তিনি নিশ্চিতভাবেই সভাপতি হচ্ছেন এমনটি দাবি করে ক্যাম্পাসে প্রভাব বিস্তার করার অভিযোগ উঠেছে। তার সহিংস কর্মকাণ্ডে হেনস্তার শিকারও হয়েছেন সাংবাদিকরা। তাঁদেরকে জীবননাশের হুমকিও দিয়েছেন তিনি। তাঁর হুমকি ধামকির পরই বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংবাদিক সমিতির কার্যালয়ে মধ্যরাতে ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। সহিংস বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের কারণে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্থিতিশীলতা নষ্ট হচ্ছে বলে অভিযোগ করছেন বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যরা।

জানা যায়, ২০১৫ সালে রেজা-ই-এলাহিকে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক করা হয়। ২০১৭ সালে বিলুপ্ত হয় তাঁর কমিটি। এরপর তিনি কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদকের দায়িত্বও পালন করেছেন। তিনি সাধারণ সম্পাদক হওয়ার পর এ পর্যন্ত ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটিরও পালা বদল হয়েছে অন্তত চার বার। ইতোমধ্যে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক বয়সও শেষ হয়েছে রেজার। শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদ অনুযায়ী তাঁর বয়স বর্তমানে ৩১। আর ছাত্রলীগের সংগঠনে অন্তর্ভুক্ত থাকার বয়সসীমা সর্বোচ্চ ২৯।

রেজা-ই-এলাহি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হওয়ার পর থেকে বাড়তে থাকে অপকর্ম। সেসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হলে দেশীয় মরণাস্ত্র ও আগ্নোয়াস্ত্র জড়ো করার অভিযোগ ওঠে তাঁর বিরুদ্ধে। এরই ধারাবাহিকতায় ২০১৬ সালের ১ আগস্টে ওই হলে ছাত্রলীগের বিবাদমান দুই পক্ষের অন্তঃকোন্দলে নিহত হন কাজী নজরুল ইসলাম হল ছাত্রলীগের তৎকালীন সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ সাইফুল্লাহ। এ হত্যা মামলায় চার্জশিটভুক্ত আসামি রেজা-ই-এলাহি। হত্যাকান্ডের পর তার হল থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র উদ্ধার করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আর মামলার এজাহারে তাকে পলাতক দেখায় পুলিশ।

২০২০ সালের ৮ মার্চ রেজার এলাকা বরুড়ার তালুকপাড়া গ্রামে এক নারীকে ধর্ষণ চেষ্টা, ভাংচুর, জালিয়াতি ও লুটতরাজের অভিযোগ রয়েছে। এ ঘটনায় কুমিল্লার নারী ও শিশু দমন বিশেষ ট্রাইবুনাল-২ এ রেজাকে এক নম্বর আসামি করে একটি মামলা দায়ের করা হয়। এ বিষয়ে মামলার বাদী ফাতেমা বেগমের সাথে কথা বলতে চাইলে তিনি নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি। তবে ফাতেমা বেগম বলেন, ‘আমার সাথে যা কিছু হয়েছে আল্লাহই তার বিচার করবে। আমি এ বিষয়ে কিছু বলতে চাই না।’

বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়, রেজা-ই-এলাহির বিরুদ্ধে প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের সঙ্গেও যুক্ত রয়েছেন। স্থানীয় বাসিন্দা শাহ আলম তাঁর কাছে পাওনা ছয় লাখ টাকা না পেয়ে থানায় অভিযোগ করেন। এ বিষয়ে গত বছরের ১৫ মার্চ কুমিল্লার বরুড়া থানায় অভিযোগ দায়েরকারী শাহ আলম বলেন, ‘আমি টাকা না পেয়ে নিরুপায় হয়ে থানায় অভিযোগ করেছি। রেজা এখনো আমার সব টাকা দেয়নি।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বলছেন, এতসব অভিযোগ ও মামলার আসামি হয়েও বীরদর্পে ঘুরে বেড়াচ্ছেন রেজা-ই-এলাহি। বয়সোত্তীর্ণ, বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়মিত ছাত্র না হয়েও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভয়ের রাজনীতি করে আতঙ্ক ছড়িয়ে জননিরাপত্তা বিঘ্নিত করছেন তিনি। গত বছরের ১ অক্টোবর শতাধিক বহিরাগত নিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশ করে ফাঁকাগুলি ও ককটেল বিস্ফোরণ করেন রেজা-ই-এলাহি। সর্বশেষ গত ২৯ মে ইংরেজি বিভাগের দুই শিক্ষার্থীর মধ্যকার মারামারির ঘটনার খবর সংগ্রহ করতে গেলে একটি জাতীয় দৈনিকের কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি রুদ্র ইকবালকে হেনস্তা করেন তিনি। এরপর ‘গুন্ডামির কী দেখছে’, ‘সাংবাদিকরা এখনো আমাকে চেনে না’, ইত্যাদি বলে সংবাদকর্মীদের প্রাণনাশের হুমকি দেন তিনি ও তাঁর অনুসারীরা। এরপর ওই দিন ক্যাম্পাসে সংবাদকর্মীদের প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে তার নেতৃত্বে মিছিল হয়। গত ৩১ মে ক্যাম্পাসে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের ব্যানারে মানববন্ধন ও মিছিল করেন রেজা ও তার অনুসারীরা। এতে ভুক্তভোগী সাংবাদিকের ছবি ব্যবহার করা হয়, হুমকি দেওয়া হয় জীবননাশের।

তবে হত্যা মামলার বিষয়টি এড়িয়ে গিয়ে রেজা-ই-এলাহি বলেন, ‘ধর্ষণ মামলা তুলে নেওয়া হয়েছে। আমি বিশ্ববিদ্যালয়ে অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি কিংবা কোনো সাংবাদিক হেনস্তা করিনি।’

বয়সোত্তীর্ণ হওয়ার পরও ছাত্রলীগের সভাপতি পদপ্রার্থীর হওয়ার বিষয়ে রেজা বলেন, ‘করোনার কারণে বয়স শিথিল করা হয়েছে।’

এসব বিষয়ে কথা বলতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসাইন ও সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালি আসিফ ইনানের মুঠোফোনে একাধিকবার কল ও খুদেবার্তা পাঠিয়েও কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এএফএম আবদুল মঈন ও ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর কাজী ওমর সিদ্দিকীও প্রতিবেদকের ফোনকলের সাড়া দেননি।

এবি/ জিয়া

থমথমে জাবি, বিদ্যুৎ-পানি-ইন্টারনেট বন্ধ

সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের পর থেকে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ

শাবিপ্রবির ছাত্রলীগ নেতাদের রুম থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র উদ্ধার

কোটা সংস্কার আন্দোলনকে কেন্দ্র করে শাহজালাল  বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদের আবাসিক হল দখলে নিয়েছেন

জাবিতে পুলিশ-আন্দোলনকারীদের সংঘর্ষ, সাংবাদিকসহ আহত ৮০

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) পুলিশ ও আন্দোলনকারীদের মধ্যে সংঘর্ষে চার সাংবাদিকসহ অন্তত ৮০ শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন। বুধবার

জাবিতে পুলিশের সঙ্গে শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ চলছে, আহত ৩০

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের ধাওয়া দিয়েছে র‌্যাব-পুলিশ। এসময় শিক্ষার্থীদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ারগ্যাস ও রাবার বুলেট
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

কেবল কোটা সংস্কার করলেই ফয়সালা হবে না: সমন্বয়ক নাহিদ

চট্টগ্রামে পুলিশ বক্সে আগুন, অস্ত্র হাতে ৩ যুবকের গুলিবর্ষণ

বাংলাদেশ ভ্রমণে সর্বোচ্চ সতর্কতা অবলম্বনের নির্দেশ কানাডার

নতুন মুদ্রানীতি ঘোষণা, বাড়ানো হয়নি নীতি সুদহার

ত্রিমুখী সংঘর্ষে ১০ শিক্ষার্থীসহ সারাদেশে বেড়ে নিহত ১২

সাড়ে ৩ ঘণ্টা ধরে বিটিভি ভবনে জ্বলছে আগুন

কোটা নিয়ে আপিল বিভাগের শুনানি রোববার

যাত্রাবাড়ীতে পুলিশের গুলিতে রিকশাচালক নিহত

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও সেতু ভবনে আন্দোলনকারীদের আগুন

নরসিংদীতে কোটা আন্দোলনে সংঘর্ষে স্কুল শিক্ষার্থী নিহত

যারা পুলিশের গায়ে হাত দিচ্ছে তাদের ছাড় নয়: ডিবিপ্রধান

কোটা সংস্কারে প্রয়োজনে সংসদে আইন পাস: জনপ্রশাসনমন্ত্রী

পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে রেসিডেনসিয়াল কলেজ শিক্ষার্থী ফারহান নিহত

নিরাপত্তার স্বার্থে মেট্রোরেল চলাচল বন্ধ

সরকারের পক্ষ থেকেও আলোচনার দরজা খোলা: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

ত্রিমুখী সংঘর্ষে ১০ শিক্ষার্থীসহ সারাদেশে নিহত ১১

কোটা নিয়ে আপিল শুনানির জন্য রোববার আবেদন করা হবে

এইচএসসির তিন পরীক্ষা স্থগিত

বেধড়ক মারধরে র‍্যাব সদস্যের অবস্থা সংকটাপন্ন

লাশের ওপর দিয়ে আলোচনা নয় সরকারকে শিক্ষার্থীরা