বিপিএলে দল না পাওয়া নিয়ে মুখ খুললেন স্বয়ং আশরাফুল!

0

বিপিএলের প্লেয়ার্স ড্রাফট চলছে রাজধানীর হোটেল রেডিসনে। লটারির মাধ্যমে দেশি এবং বিদেশি খেলোয়াড় বেছে নিচ্ছে দলগুলো। দেশি খেলোয়াড় বেছে নেয়ার প্রক্রিয়া শেষ হয়েছে। কিন্তু আশরাফুলকে ডাকেনি কোনো দল। স্বভাবতই দেশি খেলোয়াড়দের মধ্যে সবচেয়ে বেশি

চাহিদা ছিল ‘এ প্লাস’ ক্যাটাগরির চারজনের। সাকিব আল হাসান নিষেধাজ্ঞার কারণে এবারের বিপিএলে নেই। ‘এ’ প্লাস ক্যাটাগরিতে থাকা চার ক্রিকেটার হলেন-মাশরাফি বিন মর্তুজা, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহীম আর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

তামিম, মুশফিক, মাহমুদউল্লাহকে সবার আগে নিয়ে নিয়েছে দলগুলো। কিন্তু মাশরাফি বিন মর্তুজাকে শুরুতে কয়েক ধাপেও ডাকেনি কোনো দল। মনে হচ্ছিল, এবার বোধ হয় মাশরাফিও বিক্রি হবেন না। কিন্তু শেষ পর্যন্ত দশম ডাকে নড়াইল এক্সপ্রেসকে দলে ভেড়ানোর কথা জানায় ঢাকা প্লাটুন।

একই দলে আছেন তামিম ইকবালও। অর্থাৎ এ প্লাস ক্যাটাগরির দুই খেলোয়াড় এবার এক দলে। মাশরাফির মতো কি আশরাফুলও পরে ডাক পাবেন? এমন আশায় ছিলেন তার ভক্তরা। কিন্তু কয়েক দফা চলে গেলেও আশরাফুলের নামটি মুখে নিলো না কোনো দল।

ফলে অবিক্রিতই রয়ে গেলেন জাতীয় দলের এই সাবেক অধিনায়ক। বিপিএলে আশরাফুল এমন উপেক্ষিত হবেন, এটা অবশ্য বড় কোনো বিস্ময়ের খবর নয়। এবারের জাতীয় লিগেও দল পেতে রীতিমত হিমসিম খেতে হয়েছে মিডল অর্ডার এই ব্যাটসম্যানকে।

বিপিএলের মতো আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে চাহিদাটা আরও কমই হওয়ার কথা। এবারের বিপিএল আয়োজন করা হচ্ছে বিসিবি থেকেই। অথচ এই বিপিএলে কোন দলেই পেলেন না আশরাফুল। হলেন দারুণ অবহেলিত। তবে এই ব্যাপারটিকে মোটেও অবহেলিতভাবে দেখছেন না আশরাফুল।

তার মতে এইসব কিছু ফ্রেঞ্চাইজিদের ইচ্ছে। এই ব্যাপারে তিনি বলেন, আসলে বিপিএলে দল পাওয়া না পাওয়াটা ভাগ্যের ব্যাপার। এখানে আমি কারোর দোষ দেখছি না। আর আমি এটাও মনে করছি যে এখানও আমার সুযোগ শেষ হয়ে যায়নি। যদি ভালো কোন সুযোগ পাই, অবশ্যই ভেবে দেখবো। উল্লেখ্য যে এবারের বিপিএলে আশরাফুলকে কোন দলেই কিনে নেয়নি।

Leave A Reply

Your email address will not be published.