এবার ৪, ৪, ৪! সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল সমালোচিত সেই ভারতীয় পেসার

0

বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে খেলছেন না যশপ্রীত বুমরাহ, মোহাম্মদ শামি, ভুবনেশ্বর কুমাররা। এ সুযোগে ২০২০ বিশ্বকাপের জন্য দলে নিজের জায়গা পাকা করতে পারতেন খলিল আহমেদ। তবে চলতি টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে হতাশ করেছেন তিনি।

প্রথম টি-টোয়েন্টিতে খলিলের ওভারে পর পর ৪টি চার মেরে বাংলাদেশের জয় নিশ্চিত করেন মুশফিকুর রহিম। বৃহস্পতিবার তার প্রথম ওভারেই পর পর ৩ বলে ৩টি বাউন্ডারি মারেন টাইগার ওপেনার মোহাম্মদ নাইম। অর্থাৎ দুই টি-টোয়েন্টি মিলিয়ে খলিলের শেষ ৭ বলে টানা

৭টি চার মারেন বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। এর পরে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রবল সমালোচিত হন তিনি। প্রথম টি-টোয়েন্টির মতো দ্বিতীয় ম্যাচেও নিজের নামের প্রতি সুবিচার করতে পারেননি খলিল। বৃহস্পতিবার ৪ ওভার হাত ঘুরিয়ে ৪৪ রান দেন তিনি। নেন মাত্র ১ উইকেট। তার বোলিং দেখে হতাশ দেশের ক্রিকেট ভক্তরা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় খলিলের সমালোচনা করছেন তারা। যে যার মতো করে ট্রোল করছেন। কেউ লিখেছেন, প্রথম ম্যাচে হতশ্রী পারফরম্যান্সের পর কোনো অধিনায়কই তাকে সুযোগ দিত না। ব্যতিক্রম রোহিত শর্মা। আরেক ক্রিকেট ভক্ত লিখেছেন, বল করতে এসেই নিজের কাজ শুরু করে দিয়েছে। নিজের কাজ বলতে সেই ভক্ত বোঝাতে চেয়েছেন রান দেয়া।

রাজকোটে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দারুণ করে বাংলাদেশ। যুজবেন্দ্র চাহাল মোক্ষম সময়ে লাল-সবুজ জার্সিধারীদের রানের গতিতে রাশ টানেন।চাপের মুখে উইকেট তুলতে না পারলেও রান আটকে রাখতে পারতেন খলিল। কিন্তু সেই কাজটা করতে পারেননি তিনি।

স্বভাবতই বাঁ-হাতি পেসারের ওপর মোহভঙ্গ হয়েছে ভারতীয় ক্রিকেটভক্তদের। সিরিজের ফলাফল এখন ১-১। নাগপুরের তৃতীয় ম্যাচ সিরিজ নির্ধারণী। ওই ম্যাচে যে জিতবে-তারাই ট্রফিতে চুমু আঁকবে। ফাইনালি লড়াইয়েও কি সুযোগ পাবেন খলিল? এটাই এখন কোটি টাকার প্রশ্ন!jugantor

Leave A Reply

Your email address will not be published.