দুধের টাকা যোগাতে না পেরে নিজের সন্তানকে হত্যা করলেন মা !

দুধের টাকা যোগাতে না পেরে নিজের সন্তানকে হত্যা করার অভিযোগ উঠেছে এক মায়ের বিরুদ্ধে। ঢাকার দোহার উপজেলার উত্তর জয়পাড়া মিয়াপাড়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় শিশুটির মা সাথী আক্তারকে আটক করেছে পুলিশ।

জানা যায়, উত্তর জয়পাড়া গ্রামের বাসিন্দা মো.বাচ্চু (৩০) সঙ্গে সাথী আক্তারের (২০) তিন বছর আগে পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। পরে তাদের সংসারে আসে সাবিহা আক্তার নামে দুই বছরের একটি মেয়ে ও মো. সায়েম নামে দুই মাসের এক ছেলে। বাচ্চু রাজমিস্ত্রীর কাজ করেন। অভাবের সংসার কোন রকমে চলে তাদের।

রোববার সকালে বাচ্চুকে সায়েমের দুধ আনতে বলেন সাথী। বিকেলে স্বামী দুধ না নিয়ে বাড়ি ফিরলে আশপাশের কয়েকজনের কাছে সন্তানের দুধ কেনার টাকা ধার চান সাথী। কিন্তু টাকা যোগাতে না পেরে সন্ধ্যায় ক্ষোভে-দুঃখে সায়েমকে লবণ খাইয়ে দেন সাথী। এ সময় শিশুটির শ্বাসকষ্ট শুরু হলে তাকে সাথী নিজেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে শিশুটিকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। বিষয়টি জানতে পেরে হাসপাতালে গিয়ে সন্তানের মৃতদেহ বাড়িতে নিয়ে আসেন বাচ্চু। পরে খবর পেয়ে সোমবার সকালে সাথী আক্তারকে আটক করে দোহার থানা পুলিশ।

মো. বাচ্চু বলেন, অভাবের সংসারে টানাপোড়েন লেগেই থাকে। সাথী আমাকে দুধের কথা বলেছিল, আনতে পারিনি। সেই কষ্টে ছেলেকে লবণ খাইয়ে মেরে ফেলেছে সে।

দোহার থানার ওসি মো. সাজ্জাত হোসেন জানান, জিজ্ঞাসাবাদে সাথী আক্তার বিষয়টি স্বীকার করেছেন। তাকে আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।