উ.কোরিয়ার কিমের সঙ্গে নতুন বৈঠকের অপেক্ষায় রয়েছেন ট্রাম্প

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প মঙ্গলবার বলেছেন, তিনি উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে নতুন করে বৈঠকের অপেক্ষায় রয়েছেন। পিয়ংইয়ংয়ের ওপর যুক্তরাষ্ট্র তাদের অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা বজায় রাখলে পারমাণবিক আলোচনার ব্যাপারে উত্তর কোরিয়া তাদের অবস্থান পরিবর্তন করতে পারে বলে দেশটির নেতা হুঁশিয়ার করে দেয়ার একদিন পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট এমন মন্তব্য করলেন। খবর এএফপি’র।

টুইটারে দেয়া এক বার্তায় ট্রাম্প বলেন, ‘আমি চেয়ারম্যান কিমের সঙ্গে বৈঠকের অপেক্ষায় রয়েছি। কেননা, তিনি বুঝতে পেরেছেন যে উত্তর কোরিয়া ব্যাপক অর্থনৈতিক সম্ভাবনা রয়েছে। আর এটা তার জন্য খুব ভাল।’ উত্তর কোরিয়া হয় কোন পারমাণবিক অস্ত্র তৈরি করবে, না হয় দূর পাল্লার কোন ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষা চালাবে নববর্ষের ভাষণে কিম এমন ঘোষণা দেয়ার পর মার্কিন নেতা তার এ মন্তব্য করেন।

কিম গত বছর জুনে সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিত মার্কিন প্রেসিডেন্ট টাম্পের সাথে তার সম্মেলনের কথা উল্লেখ করে বলেন, ওই সময় তিনি ‘ফলপ্রসূ’ আলোচনা এবং ‘গঠনমূলক মতবিনিময়’ করেন। সিঙ্গাপুরের ওই সম্মেলনে এ দুই নেতা কোরীয় উপদ্বীপের নিরস্ত্রীকরণ বিষয়ে একটি অস্পষ্ট চুক্তি স্বাক্ষর করেন। তবে এটা নিয়ে পাল্টাপাল্টি বিতর্ক থাকায় এক্ষেত্রে তেমন কোন অগ্রগতি দেখা যাচ্ছে না।

এরআগে ট্রাম্প বলেছিলেন, এ বছরের গোড়ার দিকে কিমের সঙ্গে তার দ্বিতীয় বৈঠক হতে পারে বলে তিনি আশা করছেন। কিম তার নববর্ষের ভাষণে বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্র সমগ্র বিশ্বের সামনে করা তাদের প্রতিশ্রুতি রক্ষা না করে অবরোধের বিষয়ে জোর করলে এবং আমাদের ওপর চাপ বজায় রাখলে আমরা আগের অবস্থান থেকে সরে এসে আমাদের নিরাপত্তা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষার স্বার্থে নতুন পন্থার কথা বিবেচনা করতে পারি।’

কিম আরো বলেন, তিনি যেকোন সময় ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক বসতে আগ্রহী রয়েছেন। আর এই বৈঠকে তিনি আন্তর্জাতিক গোষ্ঠী সাধুবাদ জানাতে পারে এমন ফলাফল অর্জনের চেষ্টা চালাবেন।

বাসস